৬,০০০ টাকার মধ্যে Redmi, Samsung, Jio-র সেরা ৫টি ফোনগুলি দেখে নিন

 ৬,০০০ টাকার মধ্যে Redmi, Samsung, Jio-র সেরা ৫টি ফোনগুলি দেখে নিন

৬,০০০ টাকার মধ্যে Redmi, Samsung, Jio-র সেরা ৫টি ফোনগুলি দেখে নিন

ইলেক্ট্রনিক্স বাজার হল হরেকরকম ফিচার ও দামের স্মার্টফোনের সংগ্রহশালা। ফলে, ক্রেতারা তাদের পকেটের অবস্থা অনুযায়ী নিজেদের পছন্দের স্মার্টফোন কিনতে পারেন অনায়াসেই। সেক্ষেত্রে একটি নতুন স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে আপনার বাজেট যদি অতিশয় কম হয়, তাহলেও হতাশ হওয়ার কিছু নেই। কারণ, এন্ট্রি-লেভেল স্মার্টফোনগুলিকে এখন ফিচার ফোনের কাছুটা বেশি দামে লঞ্চ করা হচ্ছে। 

এই ধরণের স্মার্টফোনে আপনারা অ্যাডভান্স ফিচারের স্মার্টফোনগুলির ন্যায় অত্যাধুনিক ফিচারের সুবিধা না পেলেও, একাধিক কার্যকরী ফিচার পেয়ে যাবেন। যেমন, এই এন্ট্রি-লেভেল স্মার্টফোনগুলিতে, চমৎকার ডিসপ্লে প্যানেল, 4G কানেক্টিভিটি, দুর্দান্ত ক্যামেরা, ২ জিবি পর্যন্ত র‍্যাম, ৫,০০০ এমএএইচ পর্যন্ত ব্যাটারি মিলবে। আজ আমরা আপনাদের বাজারে বিদ্যমান এন্ট্রি-লেভেল স্মার্টফোনগুলির মধ্যে সেরা ৫টির খোঁজ দেব, যেগুলির দাম শুরু হচ্ছে মাত্র ৪,৬৯৯ টাকা থেকে। 

আসুন তালিকাটি নেওয়া যাক এবার….

Best Smartphones under 6000 Taka

Jio Phone Next: 5799 Taka

২০২১ সালের চতুর্থ কোয়ার্টারে আত্মপ্রকাশ করা জিও ফোন নেক্সট -এ রয়েছে একটি ৫.৪৫ ইঞ্চির এইচডি প্লাস (৭২০x১,৪৪০ পিক্সেল) ডিসপ্লে, যার রিফ্রেশ রেট ৬০ হার্টজ। এটি অক্টা কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন কিউএম২১৫ প্রসেসর সহ এসেছে। আর অপারেটিং সিস্টেমের কথা বললে, কথিত হ্যান্ডসেটটি হল অ্যান্ড্রয়েড ভিত্তিক প্রগতিওএস চালিত প্রথম স্মার্টফোন। স্টোরেজ হিসাবে এতে, ২ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি ইন্টারনাল মেমরি উপলব্ধ। তবে মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ৫১২ জিবি পর্যন্ত বর্ধিত করা যাবে। ফটো তোলার শখ রাখেন যারা, তাদের জানিয়ে দিই, উক্ত ফোনে ১৩ মেগাপিক্সেলের (এফ/১.৩ অ্যাপারচার) রিয়ার ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। আর ডিসপ্লের উপরিভাগে থাকছে এফ/১.৪ অ্যাপারচার সহ একটি ৮ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। তদুপরি, ফোনটির সেন্সর তালিকায় – প্রক্সিমিটি সেন্সর, অ্যাক্সেলেরোমিটার সেন্সর এবং অ্যাম্বিয়েন্ট লাইট সেন্সর সামিল রয়েছে। কানেক্টিভিটির জন্য এতে, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভি৪.১, মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট, ডুয়েল সিম স্লট, ৩.৫ মিমি অডিও জ্যাক এবং OTG সাপোর্ট পাওয়া যাবে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, জিও ফোন নেক্সটে ৩,৫০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে।

Samsung M01 Core: 4999 Taka

অ্যান্ড্রয়েড ১০ গো অপারেটিং সিস্টেম দ্বারা চালিত স্যামসাং এম০১ কোর স্মার্টফোনে দেওয়া হয়েছে একটি ৫.৩ ইঞ্চির এইচডি প্লাস (৭২০x১,৪৮০ পিক্সেল) ডিসপ্লে, যার এসপেক্ট রেশিও ১৮.৫:৯। উন্নত পারফরম্যান্স ও মাল্টিটাস্কিং অফার করতে এতে ১.৫ গিগাহার্টজ ক্লক রেটের কোয়াড কোর মিডিয়াটেক এমটি৬৭৩৯ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ইউজাররা এতে ডিফল্ট ভাবে ২ জিবি পর্যন্ত র‍্যাম ও ৩২ জিবি পর্যন্ত মেমরি পেয়ে যাবেন। তবে মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ফোনের স্টোরেজ ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব। ক্যামেরা সেটআপের কথা বললে, উক্ত হ্যান্ডসেটে ৮ মেগাপিক্সেলের রিয়ার সেন্সর ও ৫ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা বর্তমান। এছাড়া, সেন্সর অপশনের মধ্যে সামিল থাকছে, প্রক্সিমিটি সেন্সর এবং অ্যাক্সেলেরোমিটার সেন্সর। এই ফোনে ৩,০০০এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। ১৫০ গ্রাম ওজনের স্যামসাং এম০১ কোর স্মার্টফোনকে আপনারা ব্ল্যাক, ব্লু এবং রেড কালারে কিনে নিতে পারবেন।

Redmi Go: 5199 Taka

কোয়ালকম এমএসএম৮৯১৭ স্ন্যাপড্রাগন ৪২৫ প্রসেসরের সাথে লঞ্চ হওয়া রেডমি গো স্মার্টফোনে আছে একটি ৫ ইঞ্চির (৭২০x১,০৮০ পিক্সেল) IPS LCD ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লে ১৬:৯ এসপেক্ট রেশিও সাপোর্ট করে। ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও ভিত্তিক গো ভার্সন দ্বারা চালিত। আর স্টোরেজ হিসাবে এতে ১ জিবি র‍্যাম ও ১৬ জিবি পর্যন্ত রম পাওয়া যাবে। ক্যামেরা ফ্রন্টের কথা বললে, উক্ত মডেলটি ৮ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা ও ৫ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা সহ এসেছে। কানেক্টিভিটির জন্য এতে, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ৪.১, জিপিএস, এফএম রেডিও, মাইক্রো ইউএসবি ২.০ পোর্ট ও ৩.৫মিমি হেডফোন জ্যাক অন্তর্ভুক্ত। ১৪০.৪০x৭০.১০x৮.৪০ মিমি পরিমাপ এবং ১৩৭ গ্রাম ওজনের এই স্মার্টফোনকে ব্ল্যাক ও ব্লু কালারে কেনা যাবে।

Lava Z1S: 4699 Taka

লাভা জেড১এস স্মার্টফোনে রয়েছে একটি ৫ ইঞ্চির (৭২০x১,৬০০ পিক্সেল) TFT ডিসপ্লে, যার এসপেক্ট রেশিও ১৬:৯। উন্নত পারফরম্যান্স সরবরাহ করার জন্য এটি অক্টা কোর ইউনিসক এসসি৯৮৬৩ প্রসেসরে কাজ করে। এতে ২ জিবি র‍্যাম ও ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ পাওয়া যাবে। অন্যদিকে, ক্যামেরা ফ্রন্টের কথা বললে, উক্ত হ্যান্ডসেটের ব্যাকপ্যানেলে এফ/২.২ অ্যাপারচার সমেত একটি ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আছে। আর ডিসপ্লের উপরিভাগে থাকছে একটি ২ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। সেন্সর হিসাবে এতে প্রক্সিমিটি সেন্সর এবং অ্যাক্সেলেরোমিটার সেন্সর উপলব্ধ। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, এই স্মার্টফোনে দেওয়া হয়েছে ৩,১০০এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি। লাভার এই এন্ট্রি-লেভেল স্মার্টফোনকে ব্লু এবং রেড কালারে কেনা যাবে।

Gionee Max: 6299 Taka

জিওনি ম্যাক্স স্মার্টফোনটি আপনাদের ৬,০০০ টাকার একটু বেশি খরচ করতে হবে। তবে অন্যান্য ফোনের তুলনায় এটির দাম সামান্য বেশি হলেও, ফিচারগুলি কিন্তু বেশ চিত্তকর্ষক। যেমন, এই ফোনে আছে একটি ৬.১ ইঞ্চির (৭২০x১,৫৬০ পিক্সেল) IPS LCD ডিসপ্লে। এটি ইউনিসক এসসি৯৮৬৩এ প্রসেসর সহ এসেছে। অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে এতে অ্যান্ড্রয়েড ১০ পাওয়া যাবে। আর, স্টোরেজের ক্ষেত্রে উক্ত হ্যান্ডসেটে ২ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি ইন্টারনাল রম উপলব্ধ। যদিও মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। এবার আসা যাক ক্যামেরা সেটআপের প্রসঙ্গে। কথিত ফোনের পেছনে একটি ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সামনে ৫ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা লক্ষণীয়। আবার, সিকিউরিটির জন্য এতে ফেস আনলক ফিচার বর্তমান। এছাড়া সেন্সর হিসাবে, প্রক্সিমিটি সেন্সর, অ্যাক্সেলেরোমিটার সেন্সর এবং অ্যাম্বিয়েন্ট লাইট সেন্সর পাওয়া যাবে। এই স্মার্টফোনে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে। জিওনি ম্যাক্স স্মার্টফোনকে ব্ল্যাক, রেড এবং রয়্যাল ব্লু কালারে বেছে নেওয়া যাবে।

Leave a Reply

x